মুম্বাইয়ের রাস্তার রাতের অতিথিরা

রাতের আধারে রাস্তায় শিয়াল, কুকুর নেমে আসা আমাদের জন্য স্বাভাবিক ব্যাপার। কিন্ত মুম্বাইবাসীর জন্য রাত হলে রাস্তাতে শুধুমাত্র শিয়াল, কুকুরই নেমে আসে না এর সাথে সাথে চলে আসে শিকারী চিতা বাঘ।

মুম্বাইয়ের রাস্তায় রাত হলেই চিতা বাঘের আনাগোনা একইসাথে যেরকম ভীতিকর তদ্রুপ মুম্বাই বাসীর জন্য কল্যাণকর ব্যাপারও বটে।

এই বাঘগুলো মূলত আসে সঞ্জয় গান্ধী ন্যাশনাল পার্ক থেকে। রাত হলেই এরা দেয়াল পেরিয়ে রাস্তায় নেমে আসে। নির্দিষ্ট প্রাণী শিকার করার পর আবার তারা তাদের যথাস্থানে ফেরত চলে যায়।

তবে আশার বিষয় হল এই চিতাবাঘের দ্বারা মানুষ আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা খুব অল্পই ঘটেছে কেননা এরা মূলত মুম্বাইয়ের রাস্তাতে আসে কুকুর শিকার করতে। কুকুরের পাশাপাশি মানুষের পালা শূকর, মুরগি ইত্যাদি তারা শিকার করে থাকে।

মুম্বাইবাসীর জন্য রাতের বেলা কুকুর এক ভীতিকর প্রাণী হিসেবে দেখা দিয়েছে। কম করে হলেও এখানে ৯৫,০০০ কুকুর আছে। প্রতি বছর প্রায় ৭৫,০০০ কুকুর দ্বারা মানুষের আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা ঘটে। গত বিশ বছরে কম করে হলেও চারশত বিশ জন র‍্যাবিসে আক্রান্ত হয়ে মারা যায়। লেওপার্ড বা চিতা বাঘের ডায়েটের ৪০% হল এই কুকুরের মাংস। অর্থাৎ কুকুর শিকার করে এরা মুম্বাইয়ের অধিবাসীদের কিছুটা হলেও স্বস্তি দান করছে।

রাত হলে মানুষের মাঝে চিতাবাঘের এই আগমন প্রকৃতিবিজ্ঞানীদের বায়োডায়ভার্সিটির ব্যাপারে নতুন করে ভাবতে শেখাচ্ছে। [১]

তথ্যসুত্রঃ
১) https://www.theguardian.com/cities/2018/mar/23/mumbai-leopards-stray-dogs-protect-sanjay-gandhi-national-park
.
২) https://www.theguardian.com/cities/2014/nov/26/leopards-mumbai-life-death-living-ghosts-sgnp
.
৩) https://www.nationalgeographic.com/news/2018/03/mumbai-leopards-sanjay-gandhi-national-park-stray-dogs-rabies-spd/
.

৪) https://www.vice.com/en_asia/article/wjmdnb/sanjay-ghandi-national-park-leopards-urban-jungle

লিখেছেনঃ Saowabullah Haque

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *